এইমাত্র পাওয়া

  • কাপ জিতেই ছাড়ব, জন্মদিনে শপথ মেসির
  • প্রাথমিকে ১২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জুলাইয়ে, থাকছে ৬০% নারী কোটা
  • ঝালকাঠিতে সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ধ্রুবতারা’র দোয়া ও ইফতার অনুষ্ঠান
  • ঝিনাইদহে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সেমিনার
  • দেশের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে
  • ফাঁটা পায়ের যত্নে কিছু পরামর্শ !!
  • ডায়াবেটিস রোগীরা কি রোজা রাখতে পারবে?
  • ওজন কমাবে কালো জিরা
  • হলুদ দাঁতের সমস্যা সমাধান করুন নিমিষেই
  • কিশিমিশের পানি খেলে যে উপকার পাবেন
Updated

খবর লাইভ

গর্ভাবস্থায় জোলাপ ব্যবহার করা কি নিরাপদ

10 December 2016 11:12:00 PM 212811644 ভোট:5/5 1 Comments
Star ActiveStar ActiveStar ActiveStar ActiveStar Active
গর্ভাবস্থায় জোলাপ ব্যবহার করা কি নিরাপদ

গর্ভাবস্থায় জোলাপ ব্যবহার করা কি নিরাপদ? এটি একটি সাধারণ সমস্যা প্রত্যেক গর্ভবতী নারী তার ডাক্তারকে জিজ্ঞেস করে থাকেন যখনই তিনি সামান্য কোষ্ঠকাঠিন্য অনুভব করতে শুরু করেন| যখন আঁশ সমৃদ্ধ খাবার, জল ও তরল জাতীয় খাবার কাজ করে না, ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী, কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে আরাম পেতে বড়ি খেয়ে নেওয়াই বুদ্ধিমতীর কাজ হবে| নতুন গবেষণায় দেখা যায়, যে সকল মহিলারা গর্ভাবস্থায় কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যায় ভোগেন এবং বড়ি ও মল নরম করার ঔষধ খেয়ে থাকেন, নিয়মিত ভাবে এই সকল জিনিস সেবন করলে শিশুর এবং মায়ের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে|

বিশেষজ্ঞরা বলেন যে গর্ভাবস্থায় কোষ্ঠকাঠিন্যের সেরা প্রতিকার হল দৈনন্দিন খাদ্যে আঁশ সমৃদ্ধ খাবার যোগ করা| সুষম খাদ্যের পাশাপাশি সামান্য ব্যায়াম করা গুরুত্বপূর্ণ যা শরীরকে সক্রিয় এবং ফিট রাখতে সাহায্য করে| গর্ভাবস্থায় ব্যায়ামের অভাব, প্রসবের সময় মায়ের জটিলতা বাড়াতে পারে| এছাড়া গর্ভাবস্থায় কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে আরাম পেতে, অন্য কর্যকরী নিরাপদ প্রতিকার হল আপনার দৈনন্দিন ঔষুধে আয়রন সাপ্লিমেন্টের পরিমাণ হ্রাস করা|
যদি আয়রন ভিত্তিক বড়ি খাওয়া প্রয়োজনীয় হয়, তাহলে জল এবং ভিটামিন তরল আপনার ভোজনে বৃদ্ধি করা আবশ্যক| গর্ভাবস্থায় কফি থেকে দূরে থাকা, আদর্শভাবে কোষ্ঠকাঠিন্যের সম্ভাবনা কমাতে পারে| পেট শান্ত করতে জোলাপের কথা যদি বলা হয়, তাহলে বৃহৎ নির্মাণ জোলাপ, পিচ্ছিলকারক জোলাপ, উদ্দীপক জোলাপ, আস্রবনশীল জোলাপ এবং, অবশ্যই, মল নরম করার উপাদান মনোনীত করা কার্যকরী| যাইহোক, এই উল্লিখিত জোলাপগুলির সেবন যেন প্রতিবার আপনার পেট কঠিন এবং অস্বস্তিকর হওয়ার সময় একটি অভ্যাসে না দাঁড়িয়ে যায় কারণ এসব ঔষধ, দীর্ঘ সময়সীমার জন্য সেবন করলে ডিহাইড্রেশন এবং আপনার শরীরের মিনারেল এবং লবণের স্তরের একটি ভারসাম্যহীনতা তৈরি হতে পারে

এই জোলাপের চিকিৎসা যদি আপনার পছন্দ না হয়, তাহলে প্রাকৃতিক প্রতিকার হিসেবে মুলো বেছে নিতে পারেন যা একজন গর্ভবতী মহিলা, তিন দিনের জন্য রোজ সকালে জল সহযোগে খেতে পারেন যতক্ষণ না পর্যন্ত সমস্যা দূর হয়| গর্ভবতী মহিলাদের কোষ্ঠকাঠিন্য চিকিৎসার জন্য অন্যান্য প্রাকৃতিক প্রতিকার হল আহারের মধ্যে বাঁধাকপি রাখা, যেহেতু সবুজ সবজি ভিটামিন এবং ফাইবারে ভরপুর থাকে, যা আরামে মলত্যাগের জন্য প্রয়োজনীয়|

গর্ভবতী মহিলারা ক্যামোমিল চা নির্বাচন করতে পারেন কারণ এই চা অন্ত্রের নালী শিথিল করে, এইভাবে মল ত্যাগ সহজ করে| ক্যামোমিল চা একজন গর্ভবতী মহিলাকে প্রশমিত করে এবং সব থেকে ভালো, এটা অনিদ্রা তাড়ায় যা আরেকটি সাধারণ এবং বিরক্তিকর সমস্যা, গর্ভবতী মহিলারা মুখোমুখি হন| অতএব, গর্ভাবস্থায় জোলাপ ব্যবহার করা নিরাপদ| তবে, অপরিমিত মাত্রায় নয় কারণ তাতে ক্রমবর্ধমান ভ্রুনের উপর বিরূপ প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা থাকে|

Loading...
advertisement
সর্বশেষ সংবাদ
এ বিভাগের সর্বশেষ