এইমাত্র পাওয়া

  • কাপ জিতেই ছাড়ব, জন্মদিনে শপথ মেসির
  • প্রাথমিকে ১২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জুলাইয়ে, থাকছে ৬০% নারী কোটা
  • ঝালকাঠিতে সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ধ্রুবতারা’র দোয়া ও ইফতার অনুষ্ঠান
  • ঝিনাইদহে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সেমিনার
  • দেশের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে
  • ফাঁটা পায়ের যত্নে কিছু পরামর্শ !!
  • ডায়াবেটিস রোগীরা কি রোজা রাখতে পারবে?
  • ওজন কমাবে কালো জিরা
  • হলুদ দাঁতের সমস্যা সমাধান করুন নিমিষেই
  • কিশিমিশের পানি খেলে যে উপকার পাবেন
Updated

খবর লাইভ

বিভিন্ন পদে ১১৪০ জন লোক নেবে সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ

২৭ জানুয়ারি ২০১৬ ০৪:০১:৫৫ এএম 35115372 ভোট:5/5 1 Comments
Star ActiveStar ActiveStar ActiveStar ActiveStar Active
বিভিন্ন পদে ১১৪০ জন লোক নেবে সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ

বিভিন্ন পদে ১১৪০ জন লোক নেবে সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প। আবেদনের শেষ তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি। 

 সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ বাস্তবায়ন করছে ‘একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প’। সম্প্রতি প্রকল্পটিতে ১১৪০ জন লোক চেয়ে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিটি প্রকাশিত হয়েছে ২৪ জানুয়ারির কালের কণ্ঠ’র ৯ পৃষ্ঠায়। প্রধান কার্যালয়ের জন্য হিসাবরক্ষক, হিসাব সহকারী, ডাটা এন্ট্রি অপারেটর, ড্রাইভার, অফিস সহায়ক ও ক্লিনার নিয়োগ দেওয়া হবে। জেলা কার্যালয়ের জন্য নেওয়া হবে কম্পিউটার অপারেটর-কাম-অফিস সহকারী ও অফিস সহায়ক বা নৈশপ্রহরী। উপজেলা কার্যালয়ে নিয়োগ দেওয়া হবে ফিল্ড সুপারভাইজার, কম্পিউটার অপারেটর-কাম-হিসাব সহকারী, মাঠ সহকারী ও নৈশপ্রহরী। একটি বাড়ি একটি খামারের প্রকল্প পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ড. প্রশান্ত কুমার রায় জানান, প্রকল্প সময়ের জন্য অস্থায়ী ভিত্তিতে লোক নেওয়া হবে। ভালো করলে প্রকল্প শেষে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থায়ী চাকরির সুযোগ আছে। প্রকল্প শেষে যেসব কর্মচারী-কর্মকর্তার নামে কোনো অভিযোগ থাকবে না, কাজের ক্ষেত্রে সততা থাকবে, তাঁরা ইচ্ছা করলে ব্যাংকে নিয়মিত হতে পারবেন। অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি।

 আবেদনের যোগ্যতা

হিসাবরক্ষক পদের সংখ্যা ১ জন। আবেদনের জন্য থাকতে হবে হিসাববিজ্ঞান বা বিবিএতে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণির বা সমমানের স্নাতক ডিগ্রিসহ সংশ্লিষ্ট কাজে ২ বছরের অভিজ্ঞতা। হিসাব সহকারী পদে নেওয়া হবে ২ জন। যোগ্যতা বাণিজ্য বিভাগে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণি বা সমমানের স্নাতক ডিগ্রি। অগ্রাধিকার পাবেন সংশ্লিষ্ট কাজে অভিজ্ঞরা। ডাটা এন্ট্রি অপারেটর পদে নেওয়া হবে ৩ জন। থাকতে হবে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণি বা সমমানের স্নাতক ডিগ্রি (বিজ্ঞানে স্নাতকদের অগ্রাধিকার), কম্পিউটারে (বাংলা ও ইংরেজি) এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস এক্সেস প্রোগ্রামে দক্ষতা (অভিজ্ঞদের অগ্রাধিকার)। ড্রাইভার নিয়োগ দেওয়া হবে ১ জন। অষ্টম শ্রেণি পাস হলে আবেদন করা যাবে, থাকতে হবে ৫ বছরের অভিজ্ঞতাসহ ড্রাইভিং লাইসেন্স। অফিস সহায়ক পদে নেওয়া হবে ২ জন। কমপক্ষে এসএসসি পাস হতে হবে, অগ্রাধিকার পাবেন অভিজ্ঞ প্রার্থীরা। ক্লিনার নেওয়া হবে ১ জন। আবেদনের যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি পাস। অগ্রাধিকার পাবেন ঝাড়ুদার বা ক্লিনার হিসেবে অভিজ্ঞ প্রার্থীরা। ওপরের সব পদে আবেদন করতে পারবেন রাজশাহী, নেত্রকোনা, চুয়াডাঙ্গা, লালমনিরহাট, পটুয়াখালী, ভোলা, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, বরগুনা, চাঁদপুর, ফেনী, বাগেরহাট ও মাদারীপুর বাদে সব জেলার প্রার্থী।

৬৪ জন লোক নিয়োগ করা হবে কম্পিউটার অপারেটর-কাম-অফিস সহকারী পদে। থাকতে হবে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণি বা সমমানের স্নাতক ডিগ্রি (বিজ্ঞান/বাণিজ্যে স্নাতকদের অগ্রাধিকার), কম্পিউটারে (বাংলা ও ইংরেজিতে) এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস এক্সেস প্রোগ্রামে দক্ষতা (অভিজ্ঞদের অগ্রাধিকার)। অফিস সহায়ক/নৈশপ্রহরী নেওয়া হবে ৬৪ জন। কমপক্ষে এসএসসি পাস হতে হবে, অভিজ্ঞ প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এ দুটি পদে প্রতি জেলায় ১টি পদ, আবেদন করতে পারবেন সব জেলার বাসিন্দা।

ফিল্ড সুপারভাইজার নেওয়া হবে ৪২ জন। থাকতে হবে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণি/সমমানের স্নাতক ডিগ্রি। সংশ্লিষ্ট কাজে অভিজ্ঞদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। কম্পিউটার অপারেটর-কাম-হিসাব সহকারী পদে নেওয়া হবে ৫৪ জন। থাকতে হবে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণি/সমমানের স্নাতক ডিগ্রি (বাণিজ্যে স্নাতকদের অগ্রাধিকার), কম্পিউটারে (বাংলা ও ইংরেজিতে) এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস এক্সেস প্রোগ্রামে দক্ষতা (অভিজ্ঞদের অগ্রাধিকার)। আবেদন করতে পারবেন যথাক্রমে ২৫ ও ২৯ জেলার বাসিন্দা। শূন্যপদের বিবরণ পাওয়া যাবে বিজ্ঞপ্তিতে।

মাঠ সহকারী পদে নেওয়া হবে ৪২১ জন। কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণিতে/সমমানের এইচএসসি পাস হতে হবে। অগ্রাধিকার পাবেন অভিজ্ঞ প্রার্থীরা। সবচেয়ে বেশিসংখ্যক নিয়োগ দেওয়া হবে নৈশপ্রহরী পদে। এই পদে নেওয়া হবে ৪৮৫ জন। যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি পাস। নৈশপ্রহরীর কাজে অভিজ্ঞ পুরুষ প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এ দুটি পদে আবেদন করতে পারবেন সব জেলার বাসিন্দারা।

 সুযোগ-সুবিধা

হিসাবরক্ষক পদে সাকুল্য বেতন ১৬২৩০ টাকা। হিসাব সহকারী পদে সাকুল্য বেতন ১৪৮০৫ টাকা। ডাটা এন্ট্রি অপারেটর পদে সাকুল্য বেতন ১৪৮০৫ টাকা। ড্রাইভার পদে সাকুল্য বেতন ১২৫০০ টাকা। অফিস সহায়ক পদে সাকুল্য বেতন ১১৩৫০ টাকা। ক্লিনার পদে সাকুল্য বেতন ১১৩৫০ টাকা। কম্পিউটার অপারেটর-কাম-অফিস সহকারী পদে সাকুল্য বেতন ১৪৩৫০ টাকা। অফিস সহায়ক/নৈশপ্রহরী পদে সাকুল্য বেতন ১১৩৫০ টাকা। ফিল্ড সুপারভাইজার পদে সাকুল্য বেতন ১৪৮০৫ টাকা। কম্পিউটার অপারেটর কাম হিসাব সহকারী পদে সাকুল্য বেতন ১৪৩৫০  টাকা। মাঠ সহকারী পদে সাকুল্য বেতন ১৩৫৫০ টাকা। নৈশপ্রহরী পদে সাকুল্য বেতন ১১৩৫০ টাকা।

 

আবেদনের নিয়ম

আগ্রহী প্রার্থীরা দেশের যেকোনো শিডিউল ব্যাংক থেকে “একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প (নিয়োগ)”, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, সোনারগাঁও হোটেল শাখা, ঢাকার অনুকূলে বিজ্ঞপ্তির ৫, ৬, ৮ ও ১২ ক্রমিকের পদের জন্য ১০০ টাকা ও বাকি সব পদের জন্য ২০০ টাকার ডিডি (ডিমান্ড ড্রাফট) করবেন। এরপর প্রকল্পের ওয়েবসাইটে (www.ebek-rdcd.gov.bd) জনবল নিয়োগের আবেদন ফরমে ক্লিক করে প্রাপ্ত আবেদন ছক যথাযথভাবে পূরণ করে Submi করবেন। Submi-এর সময় Ctrl+P চেপে আবেদনের একটি প্রিন্ট কপি সংগ্রহ করবেন এবং তাতে স্বাক্ষর করবেন। আবেদনের প্রিন্ট কপি এবং অরিজিনাল ডিডি উপজেলা পর্যায়ের পদের জন্য নিজ উপজেলায়, জেলা পর্যায়ের পদের জন্য নিজ জেলার সদর উপজেলায় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প কার্যালয়ে জমা দিয়ে একটি প্রাপ্তি স্বীকারপত্র নিতে হবে। প্রধান কার্যালয়ের পদের জন্য আবেদনের প্রিন্ট কপি এবং অরিজিনাল ডিডি ডাকযোগে প্রকল্পের প্রধান কার্যালয়ে ডাকযোগে, কুরিয়ার বা হাতে হাতে পৌঁছাতে হবে। খামের ওপর লিখতে হবে পদের নাম। আবেদনের সঙ্গে ডিডি ছাড়া অন্য কোনো কাগজপত্র দেওয়ার প্রয়োজন নেই। মৌখিক পরীক্ষার সময় সনদপত্র যাচাই করা হবে। সে সময় কাগজপত্রের কপিও জমা নেওয়া হবে।

সাধারণ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ৩১ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখে বয়স হতে হবে ১৮ হতে ৩০ বছরের মধ্যে। তবে পল্লী উন্নয়ন ও দারিদ্র্য বিমোচনসংক্রান্ত প্রকল্প বা কর্মসূচিতে কর্মরত বা অভিজ্ঞ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩৫ বছর। মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র/কন্যা, মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র/কন্যার পুত্র/কন্যা হলে প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩২ বছর। আবেদনের শেষ তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি।

সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা বা উন্নয়ন প্রকল্পে কর্মরত প্রার্থীদের ইলেকট্রনিক দরখাস্ত দাখিলের পাশাপাশি কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদনের প্রিন্ট কপি ৩১ জানুয়ারির মধ্যে প্রধান দপ্তর বা উপজেলা প্রকল্প কার্যালয়ে পৌঁছাতে হবে। অন্যথায় দরখাস্ত বাতিল হবে। ডাকযোগে লিখিত বা মৌখিক পরীক্ষার কোনো কার্ড পাঠানো হবে না। অনলাইনে আবেদন করার সময় প্রার্থী একটি আইডি নম্বর পাবেন। ওই আইডি নম্বর সংরক্ষণ করতে হবে। এটি ব্যবহার করে প্রকল্পের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করা যাবে।

 পরীক্ষা প্রস্তুতি

দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বা মোবাইল নম্বরে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার সময়সূচি। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা এবং নিয়ম অনুসারে এই পরীক্ষা হবে। লিখিত পরীক্ষার জন্য বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে প্রস্তুতি নিতে হবে। মোট নম্বর ১০০। লিখিত পরীক্ষায় নম্বর থাকবে ৭৫। বাকি ২৫ থাকবে মৌখিক পরীক্ষায়। লিখিত পরীক্ষা হবে এমসিকিউ পদ্ধতিতে। পরীক্ষার সময় থাকবে ১ ঘণ্টা।

আপডেট ২৭ জানুয়ারি ২০১৬ ০৫:০১:৫০ এএম
Loading...
advertisement
সর্বশেষ সংবাদ
এ বিভাগের সর্বশেষ