এইমাত্র পাওয়া

  • কাপ জিতেই ছাড়ব, জন্মদিনে শপথ মেসির
  • প্রাথমিকে ১২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জুলাইয়ে, থাকছে ৬০% নারী কোটা
  • ঝালকাঠিতে সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ধ্রুবতারা’র দোয়া ও ইফতার অনুষ্ঠান
  • ঝিনাইদহে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সেমিনার
  • দেশের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে
  • ফাঁটা পায়ের যত্নে কিছু পরামর্শ !!
  • ডায়াবেটিস রোগীরা কি রোজা রাখতে পারবে?
  • ওজন কমাবে কালো জিরা
  • হলুদ দাঁতের সমস্যা সমাধান করুন নিমিষেই
  • কিশিমিশের পানি খেলে যে উপকার পাবেন
Updated

খবর লাইভ

চ্যালেঞ্জের তথ্যপ্রমাণ দিতে পারেনি ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি

13 March 2017 01:03:27 PM 163715740 ভোট:5/5 1 Comments
Star ActiveStar ActiveStar ActiveStar ActiveStar Active
চ্যালেঞ্জের তথ্যপ্রমাণ দিতে পারেনি ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি

গায়ের রঙ ফর্সা করে বলে দাবিকারী ক্রিম ফেয়ার অ্যান্ড লাভলির প্রচার করা বিজ্ঞাপন ‘৫ কোটি টাকার চ্যালেঞ্জ’-এর পক্ষে কোন তথ্যপ্রমাণ দিতে পারচ্ছে না বহুজাতিক কোম্পানি ইউনিলিভার। ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর থেকে নির্দেশ দেওয়া হলেও দাখিল করা হয়নি। বার বার সময় নিচ্ছে। বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের পরিচালক মাহবুব কবীর গত বছর ইউনিলিভারের এই বিজ্ঞাপনের বিরুদ্ধে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেন। গত বছর ২০ অক্টোবর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে এ বিষয়ে শুনানি হয়। পরে আদেশে বলা হয়, বিজ্ঞাপনে দাবি করা হয়েছে দুবাই,সিঙ্গাপুর ও জাপানের বিখ্যাত সব ক্রিমকে হারিয়ে ‘আনবিটাবল’ ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি।

দুবাই, সিঙ্গাপুর ও জাপানের কোন কোন ক্রিমকে হারানো হয়েছে, ওই ক্রিমগুলোর নাম, কোথায় কোথায় সেই প্রতিযোগিতা হয়েছে, সেখানে কারা বিচারক ছিলেন –এসবের তথ্য-প্রমাণ দিতে হবে। আদেশে প্রতিযোগিতায় হারানোর সার্টিফিকেট সমুহ,কোন আন্তর্জাতিক মানের উপর ভিত্তি করে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে, প্রতিযোগিতা কি ওপেন না ক্লোজ ডোরে হয়েছে। সে সকল প্রমাণের কাগজপত্রসহ দাখিল করতেও বলা হয়। এর পর থেকে ইউনিলিভার তথ্য-প্রমাণ হাজির না করে বার বার সময় নিচ্ছে।

সর্বশেষ গত গত ৮ মার্চ এ বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য ছিল। পরে পিছিয়ে আগামী ২১ মার্চ আবার শুনানির দিন ধার্য করা হয়। এ বিষয়ে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. আব্দুল মাজেদ বলেন, ‘আমাদের কর্মকর্তাদের ব্যস্ততার কারণে সময় দিতে না পারায় শুনানির কার্যক্রম পিছিয়ে ২১ মার্চ ধার্য করা হয়েছে।’ অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তা জানান, ইউনিলিভার কোম্পানির কাছে যে সকল তথ্য-প্রমাণ চাওয়া হয়েছে, তা দাখিল করতে পারিনি কোম্পানিটি। ইউনিলিভার অনেক বড় হওয়ায় তাঁদের বিষয়ে অনেক ভেবে চিন্তে সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে।

source - bangla.report

Loading...
advertisement
সর্বশেষ সংবাদ
এ বিভাগের সর্বশেষ